EduKare

বাংলা থেকে ২০২১ এর পদ্মশ্রী পেলেন ৭ জন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on tumblr
Tumblr

২০২১ সালের পদ্ম সম্মানপ্রাপকদের তালিকা প্রকাশ হল আজ (২৫ শে জানুয়ারী)। পশ্চিমবঙ্গ থেকে পদ্মবিভূষণ, পদ্মভূষণ সম্মানে কেউ সম্মানিত না হলেও মোট ১০২ জন পদ্মশ্রী (Padma Shri) প্রাপকদের তালিকায় ৭ জন বাঙালির নাম রয়েছে।

১। বীরেন কুমার বসাক (Padma Shri Biren Kumar Basak)

EduKare Online 1

বাংলাদেশের টাঙ্গাইলে জন্মগ্রহণ করলেও বর্তমানে ইনি পশ্চিমবঙ্গের ফুলিয়ার এক শাড়ি ব্যবসায়ী, যাঁর নিজের হাতের করা ডিজাইনের শাড়ি গোটা ভারতবর্ষে বহুল প্রচলিত এবং চর্চিত। পদ্মশ্রী পাওয়ার আগেই তিনি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড থেকে শুরু করে লিমকা বুক্স অব রেকর্ডস, ইন্ডিয়ান বুকস অব রেকর্ডেও নাম লিখিয়ে ফেলেছেন। তাঁর নিজের একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে। https://www.birenkumarbasak.in/

২। নারায়ণ দেবনাথ (Padma Shri Narayan Debnath)

EduKare Online 3

নারায়ণ দেবনাথকে চেনেনা এমন বাঙালি বোধহয় খুঁজে পাওয়া যাবেনা। ‘হাঁদা ভোঁদা’, ‘বাঁটুল দি গ্রেট’, ‘নন্টে ফন্টে’, ‘পটলচাঁদ দি ম্যাজিশিয়ান’, ‘বাহাদুর বেড়াল’, ‘ডানপিটে খাদু আর তার কেমিক্যাল দাদু’ এবং ‘পেটুক মাস্টার বটুকলাল’ এসব বিখ্যাত চরিত্রের সৃষ্টিকর্তা তো তিনিই। ছোট বড় সব বয়েসের পাঠকের কাছে ভীষণ ভালোবাসার এক আর্টিস্ট। ১৯৬২ সালে শিশুদের মাসিক পত্রিকা ‘শুকতারা’য় ‘হাঁদা ভোদা’ বের করা শুরু করেছিলেন, এরপর থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি উপর্যুপরি নতুন নতুন পর্ব তিনি উপহার দিয়ে গেছেন অন্তত তিনটি পৃথক প্রজন্মের অগণিত ভক্তকে। ৫৫ বছর ধরে টানা একটি চরিত্রে নতুন নতুন গল্প ফুটিয়ে তোলেন এই মানুষটি।

৩। সুজিত চট্টোপাধ্যায় (Padma Shri Sujit Chattopadhyay)

EduKare Online 5

৭৭ বছরের এই শিক্ষক মহাশয়ের নিজের পাঠশালায় তিনি ফিজ নেন মাত্র ২টাকা, তাও আবার বছরে। তাঁর পাঠশালার নাম “সদাই ফকিরের পাঠশালা”(The Eternal Fakir’s School)। ২০০৪ থেকে পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রামে চলছে এই পাঠশালা। রামনগর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক ছিলেন চট্টোপাধ্যায় মশাই। ওনার বর্তমান পাঠশালা শুরু হয় সকাল ৬ঃ৩০টায় এবং শেষ হয় সন্ধ্যা ৬টায়।

৪। মৌমা দাস (Padma Shri Mouma Das)

EduKare Online 7

৩৬ বছর বয়সী এই টেবিল টেনিস খেলোয়ার আমাদের বাঙালির গর্বের মেয়ে। কোলকাতার এই মেয়ে কমনওয়েলথে সোনা জেতে ২০১৮ সালে। শুধু তাই নয় কমনওয়েলথে টেবিল টেনিসে সর্বাধিক মেডেল (১৯ বার) পাওয়ার কৃতিত্বও রয়েছে মৌমা দাসের। ২০১৩ সালেই জিতে নেয় অর্জুন পুরষ্কার। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক টুরনামেন্টে মোট ১০০টিরও বেশি স্বর্ণপদক রয়েছে মৌমার ঝুলিতে।

এছাড়াও এই তালিকায় রয়েছেন (৫) ধর্ম নারায়ণ বর্মা (সাহিত্য ও শিক্ষা), (৬) জগদীশ চন্দ্র হালদার (সাহিত্য ও শিক্ষা) এবং (৭) গুরু মা কামালি সোরেন (সমাজসেবিকা)।

২০২১ এর পদ্ম সম্মানের পুরো তালিকা দেখু্তে ক্লিক করুন

Please Share this page

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on tumblr
Tumblr
Share on facebook
Share on twitter
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on linkedin
Share on email

Your Comment